প্রথমত, স্থানীয় হ্যান্ডসেট প্রস্তুতকারী ওয়ালটন তাদের স্মার্টফোনগুলি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে রফতানি করতে চলেছে।
ওয়ালটন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে হ্যান্ডসেট রফতানি শুরু করবে ১ মার্চ থেকে

স্থানীয় কারিগরি দল ওয়ালটন তাদের গাজীপুর প্লান্ট থেকে ১ মার্চ প্রথম চালানটি পাঠাবে – যা দেশের জন্য একটি মাইলফলক।

ওয়ালটনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এস এম মনজুরুল আলম জানিয়েছেন, ওয়ালটন গাজীপুরের চন্দ্রায় ‘ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড’ (ডাব্লুডিআইএল) উপলক্ষে দিবসটি উপলক্ষে একটি উদযাপনেরও সময় নির্ধারণ করেছে।

ওয়ালটন মূল যন্ত্রপাতি প্রস্তুতকারক হিসাবে একটি নামী আমেরিকান ব্র্যান্ডকে স্মার্টফোন সরবরাহ করবে যেখানে ডিভাইসগুলিতে “মেড ইন বাংলাদেশ” লেবেল থাকবে। এটি অবশ্য ইউএস ব্র্যান্ডের নাম প্রকাশে অস্বীকার করেছে।

এই ধরণের উত্পাদন “চুক্তি উত্পাদন” নামে পরিচিত যা পোশাক খাতে প্রচলিত।

আলম বলেন, “বাংলাদেশের স্মার্টফোনে তৈরি রফতানির স্বপ্ন এখন সত্য হয়ে উঠছে।”

আলম আরও বলেন, “উন্নত বৈশিষ্ট্যযুক্ত স্থানীয়ভাবে সমাপ্ত স্মার্টফোনগুলির গুণমান ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে।”

ওয়ালটন তাদের বাজার ইউরোপ, অস্ট্রেলিয়া এবং অন্যান্য উন্নত দেশেও প্রসারিত করবে বলে আশাবাদী।

গত বছর মার্কিন বাজারে ইলেক্ট্রনিক্স এবং আইসিটি ডিভাইসযুক্ত লেবেলযুক্ত “মেড ইন বাংলাদেশ” বাজারজাত করার জন্য ওয়ালটন অ্যামাজনের সাথে একটি চুক্তি সই করে।

দেশীয় চাহিদা সিংহের অংশ পূরণের পরে ওয়ালটন এশিয়া, ইউরোপ, আফ্রিকা এবং মধ্য প্রাচ্যের প্রায় ৩৫ টি দেশে বিস্তৃত ইলেকট্রনিক্স এবং বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম রফতানি করে আসছে।