গালওয়ান উপত্যকায় ভারত-চীন সংঘর্ষের প্রেক্ষিতে, সোমবার অত্যন্ত জনপ্রিয় টিকটোক এবং ইউসি ব্রাউজার সহ ভারতে ৫৯ টি চীনা অ্যাপস নিষিদ্ধ করার নজিরবিহীন পদক্ষেপ নিয়েছিল ভারত সরকার।
কেন ভারতে নিষিদ্ধ করা হল না পাবজি

ভারত সরকারের এই ৫৯ টি অ্যাপ এর তালিকা প্রকাশ করার পর মানুষ বেশ বিভ্রান্ত হয়েছিল যে এই নিষিদ্ধ অ্যাপ এর তালিকায় কেন ব্যাপক জনপ্রিয় মাল্টিপ্লেয়ার গেম পাবজি (PUBG) নেই। চীন অ্যাপ হওয়া সত্যেও কেন জনপ্রিয় এই অনলাইন গেমকে নিষিদ্ধ করা হল না তা নিয়ে অনেকে কৌতূহল প্রকাশ করেছিলেন।

উল্লেখযোগ্যভাবে, পাবজি মোবাইল ভারতের অন্যতম জনপ্রিয় গেমগুলির মধ্যে একটি এবং ভারতে ওয়ার রোয়্যাল গেমের মধ্যে পাবজি শীর্ষে। তাহলে প্রশ্ন আসে, পাবজি কি চীনের তৈরি না?

এটি কি চাইনিজ অ্যাপ?

২০১৭ সালে ফিরে যাওয়া যাক, পাবজি (PUBG – PlayerUnknown’s Battleground) প্রাথমিকভাবে স্টিম স্টোরের মাধ্যমে মাইক্রোসফট উইন্ডোজের জন্য উপলব্ধ করা হয়েছিল। গেমটি দক্ষিণ কোরিয়ার ভিডিও গেম সংস্থা ব্লুহোলের সহযোগী প্রতিষ্ঠান পিইউবিজি কর্পোরেশন দ্বারা বিকাশিত এবং প্রকাশিত হয়েছিল।

তাহলে প্রশ্ন হচ্ছে, চীনা সংযোগ কোথা থেকে আসে? ঠিক আছে, পরে, কোরিয়ান ডেভেলপাররা চীনের গেমিং মার্কেটে প্রবেশের জন্য চীনের বৃহত্তম গেমিং সংস্থা যা টেনসেন্ট, এর সাথে অংশীদারিত্ব করেছে। টেনসেন্ট গেমসটি টেনসেন্ট হোল্ডিংসের একটি অংশ, যা একটি চীনা বহুজাতিক সংস্থা।

টেনসেন্ট হ’ল পিবজি মোবাইলের মোবাইল ভার্সন প্রবর্তনকারী, এবং এজন্য কোনওভাবে এটিকে একটি চীনা অ্যাপ হিসেবে বলছে। আবার, গেমটির চীনা উত্স নেই। এছাড়াও, অ্যাপটি বাদ দিয়ে, পিইউবিজি পিসি এবং গেমটির কনসোল সংস্করণগুলি একেবারেই চীনা নয়।

ভারতে কি পাবজি নিষিদ্ধ?

এখন এটি পরিষ্কার যে পাবজি দক্ষিণ কোরিয়া থেকে উদ্ভুত হয়েছিল, চীন নয়, তাই ব্যবহারকারীদের উদ্বেগের কারণ নেই। ভারত সরকার পাবজি মোবাইলের উপর নিষেধাজ্ঞার সিদ্ধান্ত নেয়নি এবং ব্যবহারকারীরা আগের মতো তাদের অ্যান্ড্রয়েড, আইওএস ডিভাইসে গেমটি খেলতে সক্ষম হবে।

এই ঘটনার পরে মানুষ স্বস্তি পেয়েছে এবং তাদের আনন্দ প্রকাশ করে আনন্দময় মিমস করছে করেছে: