আপনি কি চান আপনার ওয়েবসাইট টা গুগল সার্চ রেজাল্টে প্রথমে আসুক?

তাহলে আপনার উত্তর কি হবে? আমি জানি কি বলবেন! আপনি বলবেন কি বুকার মত কথা বলছি। কে না চায় তার ওয়েবসাইট গুগল সার্চ রেজাল্টে প্রথমে আসুক।

হ্য সবাই চায় কিন্তু কয়জন পারে?

তার উত্তরে আপনি চলবেন গুগল সার্চ রেঙ্কিং এ আসা কি এত সহজ?

যে চাইলাম আর চলে আসলাম!

কিন্তু আমি আপনাকে বলছি, আপনি যদি এসইও উপযোগী পোষ্ট/আর্টিকেল লিখেন তাহলে কে আপনাকে নাম্বার ওয়ান এ আসা থেকে আটকাতে পারে?

হয়ত এটা হতা এক মাস বা দুই মাস বা ৬ মাস লাগতে পারে কিন্তু যখন আপনি রঙ্কিং এ আসবেন তখন আপনার কেমন আর্নিং হয়, তখন দেখবেন আপনার ওয়েবসাইট এ ট্রাফিক কেমন বাড়ে!

তো গুগল সার্চ রেজাল্টে আসার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ পাঁচটি টুলস নিয়ে আজ আপনাদের সাথে কথা বলব! তো আর কথা না বাড়িয়ে চলুন শুরু করি!

২০২০ সালের সেরা পাঁচটি এসইও টুলস যা গুগল রেঙ্কিং এ আসতে কাজে আসবে
২০২০ সালের শেরা পাঁচটি এসইও টুলস

প্রথমে হচ্ছে Google Search Console

গুগল সার্চ কনসল ছাড়া কেউ পারবে না গুগল সার্চ রেঙ্কিং এ আসতে। ধরুন আপনি একটা ওয়েবসাইট তৈরী করলেন কিন্তু এই তৈরী করা ওয়েবসাইট যদি আপনি গুগলে সাবমিট-ই না করেন তাহলে গুগল কিভাবে জানবে যে আপনার একটা ওয়েবসাইট আছে?

হ্য গুগল সার্চ কনসলের সাহায্যে আপনি আপনার ওয়েবসাইট এর সাইটম্যাপ তৈরি করতে পারবেন যা একটি ওয়েবসাইট এর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

আর গুগল সার্চ কনসল এর কথা এখনে শুনার আগে হয়ত আপনি জানেন বা এর কাজগুলা পারেন। গুগল সার্চ কনসল যেহেতু প্রত্যেক ব্লগারই কমবেশি জানে তাই এখানে আমি গুগল সার্চ কনসল সম্পর্কে আর কিছু বললাম না।

শুধু এটুকই বলব সপ্তাহে প্রায় ৬-৭ আপনার ওয়েবসাইট এর রিপোর্ট গুলা সার্চ কনসল থেকে দেখে নিবেন।

দ্বিতীয় হচ্ছে Google Trends

গুগল ট্রেন্স হচ্ছে গুগলের একটি অসাধারণ ফিচার যার মাধ্যমে ইউজার-রা দেখতে পারবে বর্তমানে গুগলে কার ট্রেন্ড কত বেশি চলছে।

এর মাধ্যমে আপনি কিছু নির্দিষ্ট কীওয়ার্ড লিখে সার্চ করতে পারবেন ও দেখতে পারবেন কোন কীওয়ার্ড এর সার্চ বেশি গুগলে।

যা থেকে আপনি বুঝতে পারবেন আপনি কি নিয়ে কাজ করবেন বা মানুষ কি চায়!

গুগল ট্রেন্ড ব্যবহার করে যদি আপনি কাজ করেন তাহলে একটা বড় চাঞ্চ আপনার সাইটে ট্রাফিক আসার।

তৃতীয় হচ্ছে Rank Math SEO Plugin

আপনারা যারা ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করে ওয়েবসাইট তৈরী করেছেন তাদের জন্য একটা বড় ও গুরুত্বপূর্ণ টুলস হচ্ছে Rank Math SEO প্লাগিন।

২০১৯ সাল পর্যন্ত Yoast SEO Plugin ছিল টপে। কিন্তু বর্তমানে Rank Math এর বৈশিষ্ট্য বেশি ও মানুষ এই প্লাগিনকে বেশি পছন্দ করে।

Yoast SEO প্লাগিন দিয়ে আপনি যা যা করতে পারবেন Rank Math প্লাগিম দিয়েও তা সবকিছু করতে পারবেন বরঞ্চ তার থেকে বেশি করতে পারবেন। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য ৫ টি ফোকাসিং কিওয়ার্ড চয়ন করা।

এই প্লাগিন এর সাহায্যে আপনি দেখতে পারবেন আপনার করা পোষ্টটি/আর্টিকেল টির টাইটেল, ডিস্ক্রিপসন কতটুক এসইও উপযোগী।

এছাড়া আপনি এই প্লাগিন এর সাহায্যে আপনার সাইটের সাইটম্যাপ তৈরি করতে পারবেন, আপনার সাইটের টাইটেল, ডিস্ক্রিপসন এসইও উপযোগী করতে পারবেন।

চতুর্থ হচ্ছে WebsiteResponsiveTest.Com

এটা একটা ওয়েবসাইট। এই ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে আপনি দেখতে পারবেন আপনার ওয়েবসাইট টি মোবাইল, ট্যাব, কম্পিউটার এ কতটুক উপযোগী।

তাহলে আপনি বুঝতে পারবেন কি কি বিষয়ে আপনার উন্নতি করা প্রয়োজন।

তাহলে আপনি সেই স্পেসিফিক বিষয় উন্নতি করে আপনার সাইট কে এসইও উপযোগী করে তুলতে পারবেন।

আপনাদের বলে দেই আপনার ওয়েবসাইট টি যদি সব ধরণের ইন্টারনেট ডিভাইস এর জন্য রেসপন্সিব না হয় তাহলে কখনো গুগল রেঙ্কিং এ আসতে পারবেন না।

পঞ্চম হচ্ছে বিভিন্ন ওয়েবসাইট স্পিড টেস্টার

আপনার ওয়েবসাইট এর স্পিড যদি কমে যায় বা কম থাকে তাহলে আপনি কখনই গুগল সার্চ রেঙ্কিং এ আসতে পারবেন না।

তাই বিভিন্ন ওয়েবসাইট ব্যবহার করে আপনি দেখতে পারবেন যে আপনার ওয়েবসাইট এর স্পিড কেমন বা স্পিড বাড়ানোর জন্য আপনাকে কি কি বিষয়ে উন্নতি করতে হবে।

এরকম দুটি ওয়েবসাইট হচ্ছে Pingdom.comPage Speed Insight
এই দুটি ওয়েবসাইট ব্যবহার করে আপনি দেখতে পারবেন আপনার ওয়েবসাইট এর স্পিড কেমন।

আর শুধু যে এই দুই ওয়েবসাইট তা না কিন্তু। আরো ওয়েবসাইট স্পিড টেস্ট টুলস আছে কিন্তু আমার কাছে এই দুইটা বেস্ট মনে হয়েছে তাই এই দুইটা দিলাম।

এর মাধ্যমে আপনি দেখতে পারবেন যে কি কি বিষয়ে উন্নতি করলে আপনার ওয়েবসাইট এর স্পিড বাড়বে।

সে অনুযায়ী কাজ করলে আপনার ওয়েবসাইট এর স্পিড বাড়াবে প্লাস আপনার ওয়েবসাইট এসইও তে এক ধাপ এগুবে।


তো আশাকরি পোষ্টটি আপনাদের ভালো লেগেছে, কেমন লাগল তা অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন।
আজকের মতো এই পর্যন্ত, সবাই ভালো থাকেন সুস্থ থাকেন আল্লাহ হাফেজ।

 

3 COMMENTS

    • অন পেইজ এসইও-র কাজগুলা ভালোভাবে করেন তার পর ভালো ভালো এসইও উপযোগী পোষ্ট করেন।
      অন পেইজ এসইও-র কাজ শেষ হলে অফ পেইজ এসইও করেন ভালোভাবে