তথ্য মন্ত্রক দুটি মোবাইল সংস্থা-গ্রামীণফোন এবং রবি – তাদের প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে ওয়েব সিরিজের নামে সেন্সরযুক্ত এবং অশালীন ভিডিও বিষয়বস্তু আপলোড ও প্রকাশ সম্পর্কে একটি ব্যাখ্যা চেয়েছে।
গ্রামীণফোন ও রবিকে অশ্লীল ওয়েব সিরিজ ও পর্ণগ্রাফি সম্পর্কিত চিঠি পাঠিয়েছে তথ্য মন্ত্রনালয়

বৃহস্পতিবার এখানে এক আধিকারিক হ্যান্ডআউট জানিয়েছে, তথ্য বিভাগ (পিআইডি) এই বিষয়ে দুটি মোবাইল সংস্থার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের চিঠি দিয়েছে।

চিঠিগুলিতে মন্ত্রণালয় বলেছে, “এটি জানা গেছে যে আপনার প্ল্যাটফর্ম এবং নেটওয়ার্কগুলি ব্যবহার করে ওয়েব সিরিজের নামে অশ্লীল ও কুরুচিপূর্ণ দৃশ্য, গল্প এবং কথোপকথন সহ কিছু সেন্সরযুক্ত ভিডিও সামগ্রী আপলোড করা হয়েছে এবং প্রচার করা হয়েছে। এবং এই বিষয়ে সরকারের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে।”

চিঠিগুলি বলেছে যে দেশের সংবাদমাধ্যমগুলি এই বিষয়গুলি একটি নেতিবাচক উদ্যোগ নিয়ে প্রকাশ করেছে এবং সমাজে খারাপ প্রভাব তৈরি হয়েছে।

এতে যোগ করা হয়েছে, “আপনার প্ল্যাটফর্ম এবং নেটওয়ার্কগুলি ব্যবহার করে ওয়েব সিরিজে এই জাতীয় ভিডিও বিষয়বস্তু আপলোড বা প্রচারের জন্য আপনার সংস্থাগুলির সরকারের কোনও নিবন্ধন বা লাইসেন্স রয়েছে কিনা তা সরকারকে জানতে হবে।”

চিঠিগুলিতে আরও বলা হয়েছে যে ওয়েব সিরিজের নামে নগ্ন ও অশ্লীল দৃশ্য, গল্প এবং কথোপকথনের পাশাপাশি সেন্সরযুক্ত ভিডিও সামগ্রী আপলোড করা আইন লঙ্ঘন এবং দেশের সামাজিক মূল্যবোধের পরিপন্থী।

চিঠিগুলোতে বলা হয়েছে, “এই ধরণের অবসরহীন, নগ্ন ও অশ্লীল দৃশ্যের প্রচার, গল্প এবং সংলাপগুলি বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ (সংশোধন) আইন, ২০১০ এর ধারা ৭৯, পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০১২, ধারা ৪ এবং ৮ এর মতো ডিজিটাল সুরক্ষা আইন, ২০১৩, পেনাল কোড ১৮৬০ এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন, ২০০৬ বিরোধী।”

চিঠিগুলোতে আরও বলা হয়েছে, “এই ধরণের ভিডিও সামগ্রীর প্রচার করা আমাদের সামাজিক মূল্যবোধের পরিপন্থী। আপনার মতো বড় সংস্থার কাছ থেকে এটি গ্রহণযোগ্য নয়।”

চিঠিতে দু’টি সংস্থাকে আগামী সাত দিনের মধ্যে সংক্ষিপ্তসার সহ কোনও নিবন্ধন বা লাইসেন্স থাকলে সরকারকে অবহিত করতে বলা হয়েছে।