আপনার ব্যবহৃত মোবাইল বা ল্যাপটপ নিশ্চয়ই মেরামতে দিচ্ছেন কোথাও না কোথাও? থামুন কারণ অনেক টেকনিশিয়ানরা এখন হয়ে উঠছেন সাইবার ক্রিমিনাল!

ডিজিটাল ডিভাইস থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে গ্রাহকদের ‘স্পর্শকাতর’ তথ্য ও ছবি এবং পরে ব্ল্যাকমেইল করছে সেই গ্রাহকদেরকেই।

বিষয়টি নিয়ে পুলিশ বলছে স্পর্শকাতর কোন তথ্য বা ছবি ডিজিটাল ডিভাইসে থাকলে সেটি মেরামত করতে দেওয়ার ক্ষেত্রে বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে ব্যবহারকারীদের।

ল্যাপটপ মেরামত করতে দিয়ে ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে ব্ল্যাকমেইল

নষ্ট কিংবা ত্রুটিপূর্ণ ল্যাপটপ বা মোবাইল মেরামতের জন্য যাচ্ছে টেকনিশিয়ানদের হাতে। হয়তো তখনো তাতে রয়ে গেছে সংবেদনশিল অনেক তথ্য কিংবা ছবি।

আর এসব কব্জা করে টেকনিশিয়ানরাই হয়ে উঠতে পারে ব্ল্যাকমেইলার। এমন এক অভিযোগের সূত্র ধরেই গাজীপুরের জয়দেবপুরে ‘বিডি ভিশন ইলেকট্রনিক্স’ এ অভিযান চালায় সিআইডির সাইবার পুলিশ ইউনিট।

আটক করা হয় ম্যানেজার শাকিল মাহমুদকে। শিকার করেন কিভাবে মেরামত করতে দেওয়া ল্যাপটপ থেকে তথ্য নিয়ে ব্ল্যাকমেইল করতে চেয়েছিল এক তরুণীকে।

ম্যানেজার শাকিল মাহমুদ বলেন, “আমি কিউরিসিটি বসতো ল্যাপটপটা ঘাটাঘাটি করতে গিয়ে তাদের কিছু পার্সোনাল জিনিস আমার সামনে আসে এবং ভিডিওটা নিজের পেনড্রাইভে কপি করে নেই এবং তার ম্যাকবুক থেকে ডিলেট করে দেই।”

“তারপর আমি একটা ভার্চুয়াল নাম্বার থেকে হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট ক্রিয়েট করি এবং পরে তার সাথে আমার হোয়াটসঅ্যাপে কথাবার্তা হয়। তার কাছে আমি সাইবার থেকে এটা রিমুভ করতে স্ক্রিপ্ট কিনতে হবে এবং স্ক্রিপ্ট এর একটা প্রাইস আছে যার জন্য আমি তার কাছে কিছু টাকা চাই।”

পুলিশ বলছে এ ধরনের সাইবার অপরাধ ক্রমেই বাড়ছে। ডিজিটাল ডিভাইস মেরামত করতে দিতে বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে ব্যবহারকারীদের।

সিআইডি সাইবার পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ নুরুল আলম বলেন, “সবচেয়ে সেইফ হচ্ছে যেটা সেটা হচ্ছে আমরা এরকম কোন স্পর্শকাতর কোন তথ্য যেটা দিয়ে ব্ল্যাকমেইল হইতে পারে এই জিনিসগুলা ডিভাইসে না রাখাই অর্থাৎ আমাদের ডিজিটাল ডিভাইসের ওগুলো সেভ করে না রাখা।”

“যদি আপনার এগুলো একান্ত রাখতেই হয়, আপনার দরকার হইলে আলাদা একটা হার্ডডিক্স কিনে সেখানে আপনি এটা সংরক্ষণ করতে পারেন।”

তিনি আরো বলেন, “ডিজিটাল ডিভাইস মেরামত করতে দিলে সাথে থাকাটা জরুরী। আপনি যখন আপনার কোনো ডিভাইসের পাসওয়ার্ড ব্রেক করতে যাবেন সম্ভব হলে এটা বলবেন যে, ‘ঠিক আছে আপনি পাসওয়ার্ড ব্যাক করেন আমি একটু বসছি’ এটা করলে সবচেয়ে ভালো।”

সতর্ক থাকার পরও কেউ ব্ল্যাকমেইলের শিকার হলে পুলিশকে জানানোর পরামর্শ দিয়েছেন এই কর্মকর্তা

সূত্র: চ্যানেল ২৪